• সোমবার ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    সেন্টমার্টিন দ্বীপে পর্যটক সীমিতকরণের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি

    অনলাইন ডেস্ক | ০২ অক্টোবর ২০২০ | ৩:৪১ অপরাহ্ণ

    সেন্টমার্টিন দ্বীপে পর্যটক সীমিতকরণের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি

    কক্সবাবাজার সেন্টমার্টিন্স দ্বীপে পর্যটক সীমিতকরণ এবং রাত্রিযাপন নিষিদ্ধকরণের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে পর্যটনশিল্প এবং স্থানীয় ব্যবসায়ীদের প্রচুর ক্ষতির শঙ্কা করা হচ্ছে। এতে জীবিকা হারাবে স্থানীয় বাসিন্দারা। এমনকি বিভিন্ন উদ্যোক্তাদের হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগও হয়ে পড়বে ঝুঁকিতে। কর্মসংস্থান হারা হবে পর্যটনশিল্পে নিয়োজিত অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারি। তাই এমন সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক)।

    আজ শুক্রবার দুপুরে কক্সবাজার শহরের একটি কনফারেন্স হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে টুয়াক বলেছে, সেন্টমার্টিনে অনলাইনে নিবন্ধনের মাধ্যমে প্রতিদিন ১২৫০ জন পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে বিদেশী পর্যটক বাংলাদেশ ভ্রমণে না আসার পাশাপাশি দেশীয় পর্যটক কক্সবাজার ভ্রমণে বিমুখ হবে। এতে সেন্টমার্টিন দ্বীপে ভ্রমণ ব্যবসা ক্ষতি হওয়ার সাথে সাথে হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগে গড়ে উঠা কক্সবাজার পর্যটন ব্যবসাও ক্ষতি সাধিত হবে।

    সেন্টমার্টিন দ্বীপকে ঘিরে পর্যটক ভ্রমণ সেবা প্রদানের মাধ্যমে দুইশতাধিক ট্যুর অপারেটর ও পাঁচ শতাধিক গাইড এবং অর্ধ লক্ষাধিক পর্যটকসেবি কর্মকর্তা-কর্মচারি তাদের কর্মসংস্থান হারাবে।

    গত সাত মাস কভিট-১৯ এর প্রভাবে পর্যটন স্পট বন্ধ থাকার ফলে পর্যটন ব্যবসায়িরা মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। অন্যদিকে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়িরা সরকারি কোনো সহায়তা পায়নি। এমতাবস্থায়, এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হলে সার্বিক পর্যটনশিল্পে ধ্স নামবে।

    এসব বিবেচনায় সেন্টমার্টিন দ্বীপকে ঘিরে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনটি দাবি দিয়েছেন টুয়াকের সভাপতি তোফায়েল আহম্মেদ। সংগঠনটি আগামী পাঁচ বছর চলমান প্রক্রিয়ায় পর্যটকদের জন্য ভ্রমণ অব্যহত, দেশি পর্যটকদের জন্য ভ্রমণ চার্জ না রাখার দাবি জানায়।

    সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- টুয়াকের সিনিয়র সহ-সভাপতি আনোয়ার কামাল, সহসভাপতি হোসাইন ইসলাম বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক আসাফ উদ দৌলা আশেক, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আজম, যুগ্ম সম্পাদক আল আমীন বিশ্বাস, এসএ কাজল, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সম্পাদক মো. তোহা ইসলাম, শহিদুল্লাহ নাঈম, মোহাম্মদ ইউছুপ, মোহাম্মদ শিবলি সাদেক, মুহাম্মদ মুসা, জিল্লুর রহমান চৌধুরী, আবদুস সাত্তার, সাইম রহমান অভিসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৩:৪১ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০

    shikkhasangbad24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১ 
    advertisement

    সম্পাদক ও প্রকাশক : জাকির হোসেন রিয়াজ

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি# ১, রোড# ৫, সেক্টর# ৬, উত্তরা, ঢাকা

    ©- 2023 shikkhasangbad24.com all right reserved