• মঙ্গলবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি

    অনলাইন ডেস্ক | ১৮ জুলাই ২০২০ | ৬:২৭ অপরাহ্ণ

    বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় ওই ছাত্রীর করা মামলা তুলে নিতে ভয় ভীতি ও হত্যার হুমকি দিচ্ছে প্রতারক ধর্ষক সাইফুল ইসলামের পরিবার।

    গত বৃহস্পতিবার (১৬ জুলা৯) বিকেলে ওই অনার্স পড়ুয়া ছাত্রীকে এই হুমকি দেয় সাইফুলের ভাই আরিফুল ইসলামসহ তার সাথের লোকেরা। এতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীসহ তার পরিবারের লোকজন। পরে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার (১৭ জুলাই) বিকেলে হুমকিদাতাদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেন।
    অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই ছাত্রী পাশ্ববর্তী এলাকা জয়নগর বাজারে তার এক নানার সাথে দেখা করে বাড়িতে ফিরছিলো। এ সময় ৩টি মোটরসাইকেলে করে এসে রাস্তায় তাদের পথরোধ করে দাড়ায় প্রতারক ধর্ষক সাইফুলের বড় ভাই আরিফুল ইসলাম ও তার সাথে থাকা আরো ৫/৬জন অপরিচিত যুবক।

    আরিফুল এবং তার সাথে থাকা লোকজন ওই ছাত্রী ও তার মাকে ধমকের সুরে বলেন, তাড়াতাড়ি মামলা তুলে না নিলে মা-মেয়ে দুজনকেই কেটে টুকরো করে মাটিতে পুতে ফেলবো। কেউ তোদের বাঁচাতে পারবেনা এবং অকথ্য ভাষায় তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করে ওই ছাত্রীর পড়নের বোরকা ও হিজাব ছিড়ে ফেলার চেষ্টা করে। ভয়ে চিৎকার শুরু করে আরিফুল ও তার লোকজন পালিয়ে যায়। এমতাবস্থায় নিরাপত্তাহীনতায় দিন পার করছে ওই ছাত্রীর পরিবার।

    কসবা থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ লোকমান হোসেন জানান, বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হওয়ায় ওই ছাত্রীকে মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকিসহ বিভিন্ন ভাবে ভয় ভীতি দেখাচ্ছে ধর্ষকের পরিবার এই মর্মে একটি জিডি করেছে ওই ছাত্রী। এই বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

    উল্লেখ্য, উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের শিকার হয় এক অনার্স পড়ুয়া ছাত্রী। ধর্ষক প্রতারক সাইফুল ইসলামের বাড়ি একই ইউনিয়নের ফতেহপুর গ্রামে। ওই ছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে ধর্ষক সাইফুল ধর্ষণের ঘটনা অস্বীকার করে এবং বিয়ে করতেও অস্বীকৃতি জানালে ওই ছাত্রী তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে। এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সালিশ ডাকা হয়। ধর্ষক পক্ষে প্রভাবিত হয়ে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীকে দেড়লাখ টাকা জরিমানা দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৬:২৭ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১৮ জুলাই ২০২০

    shikkhasangbad24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০ 
    advertisement

    সম্পাদক ও প্রকাশক : জাকির হোসেন রিয়াজ

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি# ১, রোড# ৫, সেক্টর# ৬, উত্তরা, ঢাকা

    ©- 2021 shikkhasangbad24.com all right reserved