• শনিবার ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    জীবনের ভয়ানক অভিজ্ঞতা জানালেন কঙ্গনা

    অনলাইন ডেস্ক | ৩১ আগস্ট ২০২০ | ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ

    জীবনের ভয়ানক অভিজ্ঞতা জানালেন কঙ্গনা

    বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনায় উঠে এসেছে মাদক চক্রের যোগ থাকার সম্ভবনা। বেশকিছু হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে মনে করা হচ্ছে, মাদক চক্রের সঙ্গে যোগ রয়েছে মূল অভিযুক্ত অর্থাৎ সুশান্তের চর্চিত প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর। তারই মধ্যে মাদকচক্র নিয়ে বিস্ফোরক দাবি করলেন ‘কুইন’ অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। জানালেন নিজের সঙ্গে ঘটা ভয়ানক অভিজ্ঞতার কথা।

    সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই নায়িকা দাবি করেন, ‘আমি যখন মানালি ছেড়েছিলাম তখন আমার ১৬ বছর বয়স। চন্ডীগড়ে একটি প্রতিযোগিতায় জিতে এক সংস্থার মাধ্যমে মুম্বাই এসেছিলাম। কেরিয়ারের শুরুর দিকে হোস্টেলে থাকতাম। তারপর এক আন্টির সঙ্গে থাকা শুরু করি। সেসময় এক অভিনেতা আমার সঙ্গে বন্ধুত্ব করে এবং বলিউডে কাজ পাইয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়।’

    ‘আমি যে আন্টির সঙ্গে থাকতাম, তার প্রতিও মুগ্ধ ছিলেন ওই অভিনেতা। তারপর আমরা তিনজনে একসঙ্গে থাকা শুরু করি। ধীরে ধীরে তিনি নিজেই স্বনিযুক্ত পরামর্শদাতা হয়ে উঠলেন। পরে ওই অভিনেতা আন্টির সঙ্গে ঝগড়া করে তাকে বের করে দেন। আমার জিনিসপত্রসহ একটা ঘরে তালাবন্ধ করে রাখেন। আমি যাই করতাম, ওনাকে বলে করতে হত। আমি একপ্রকার গৃহবন্দী ছিলাম।’

    নায়িকা বলেন, ‘ওই ব্যক্তি আমাকে বিভিন্ন পার্টিতে নিয়ে যেতেন। একদিন আমি নেশাগ্রস্ত বোধ করলাম, ওনার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়েছিলাম। পরে বুঝলাম, এটা স্বেচ্ছায় হয়নি। আমার পানীয়র মধ্যে কিছু মেশানো হয়েছিল। এরপর থেকে ওই অভিনেতা আমার সঙ্গে স্বামীর মতো আচরণ শুরু করলেন। কিছু বললেই মারধর করতেন। প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছিলাম, আপনি আমার বয়ফ্রেন্ড নন। বলতেই আমাকে চটি দিয়ে মারলেন।’

    কঙ্গনার কথায়, ‘ওই ব্যক্তি আমাকে দুবাইয়ের বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে আলাপ করালেন। আমাকে বললেন প্রবীণদের মাঝে যেন বসি। আর তিনি তখন ওই জায়গাটি ছেড়ে চলে যাবেন। আমাকে তাদের নম্বর নিতেও বলেছিলেন। আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলাম এটা ভেবে যে, আমাকে দুবাইতে পাচার করে দেয়া হবে না তো?’

    এখানেই শেষ নয়। কঙ্গনা আরও জানান, ‘আমি যখন সিনেমায় সুযোগ পাই, ওই ব্যক্তি রেগে গিয়েছিলেন। আমাকে ইনজেকশন দিয়ে বিদ্রুপ করে বললেন, আমি আর শ্যুটিংয়ে যেতে পারব না। আমি পুরো বিষয়টা পরিচালক অনুরাগ বসুকে জানিয়েছিলাম। তিনিই আমাকে আশ্রয় দিয়েছিলেন। অনুরাগ বসু আমাকে রাতে তার অফিসে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন।’

    কঙ্গনা একবার তার টুইটারেও লিখেছিলেন যে, তার তখন বয়স কম ছিল। সেসময় তার মেন্টরই নির্যাতনকারী হয়ে উঠেছিলেন। বিভিন্ন পার্টিতে নিয়ে গিয়ে পানীয়র সঙ্গে মাদক মিশিয়ে দিতেন। নায়িকার দাবি, তখনই আমি বলিউড ইন্ডাস্ট্রির ভেতরে গড়ে ওঠা মাদকের দুনিয়ার কথা জানতে পেরেছিলাম।’ তবে নায়িকা কখনোই ওই অভিনেতার নাম প্রকাশ করেননি, যে তাকে অ্যাবইউজ করেছিল।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ৩১ আগস্ট ২০২০

    shikkhasangbad24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮ 
    advertisement

    সম্পাদক ও প্রকাশক : জাকির হোসেন রিয়াজ

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি# ১, রোড# ৫, সেক্টর# ৬, উত্তরা, ঢাকা

    ©- 2023 shikkhasangbad24.com all right reserved