• বৃহস্পতিবার ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    করোনারই মতো এক ভাইরাস নিয়ে ২০১৩ সালে গবেষণা করে চীন!

    অনলাইন ডেস্ক | ০৬ জুলাই ২০২০ | ৫:০৯ অপরাহ্ণ

    করোনারই মতো এক ভাইরাস নিয়ে ২০১৩ সালে গবেষণা করে চীন!

    সারা বিশ্বে যখন কাঁপছে করোনা আতঙ্কে তখনই সামনে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। উহানের বায়োসেফটি ল্যাবরেটরিতে সাত বছর আগেই করোনাভাইরাসের মতো ভাইরাল স্ট্রেন নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। পরিত্যক্ত খনি থেকে বাদুড়ের শরীরের নমুনা পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল বায়োসেফটি ল্যাবে। সেই ভাইরাল স্ট্রেন নিয়ে গবেষণাও চলছিল। এর জের ধরেই করোনা রাসায়নিক মারণাস্ত্র কিনা সে প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছে আন্তর্জাতিক মহলে।

    করোনা বিপর্যয়ের এই পরিস্থিতিতে ভাইরাসের উৎসের প্রসঙ্গ কিছুটা আড়ালে চলে গেলেও ফের সানডে টাইমসের রিপোর্টে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তারা দাবি করেছে উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজির সংক্রামক রোগ বিভাগের এক বিশেষজ্ঞের মতামত নিয়েই এই রিপোর্ট সামনে আনা হয়েছে। বলা হয়েছে, ২০১৩ সালে করোনাভাইরাসের মতোই সংক্রামক ভাইরাল স্ট্রেন নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছিল বায়োসেফটি লেভেল-৩ ল্যাবরেটরিতে। দক্ষিণপশ্চিম চীনের একটি পরিত্যক্ত খনিতে বাদুড়ের মলমূত্র, মৃত বাদুড়ের ছড়িয়ে ছটিয়ে থাকা দেহ পরিষ্কার করতে গিয়ে ছ’জন খনি শ্রমিক অজানা সংক্রমণে আক্রান্ত হন। তাদেরও নিউমোনিয়ার মতো উপসর্গ দেখা গিয়েছিল। ওই ছ’জনের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয় সংক্রমণে। ওই খনি থেকেই পরে নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যাওয়া হয় উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে। সেখানে গবেষকরা করোনার মতোই ভাইরাল স্ট্রেনের খোঁজ পান ও সেই নিয়ে পরীক্ষা শুরু করেন।

    তবে বিজ্ঞানীরা বলেছিলেন, করোনার উৎস আসলে প্রকৃতি। এই ভাইরাস নতুন নয়। করোনাভাইরাসের পরিবারেরই সদস্য সার্স-কভ-২ যা সংক্রামক হয়ে মহামারীর মতো ছড়িয়ে পড়েছে।

    ২০১৫ সালে রেডিও ফ্রি এশিয়ার একটি প্রতিবেদনে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। তাদের দাবি ছিল উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে ভয়ঙ্কর, প্রাণঘাতী সব ভাইরাস নিয়ে কাজ করছেন গবেষকরা।

    করোনাভাইরাস কীভাবে ছড়িয়েছে সেই নিয়ে আরও একটি বিস্ফোরক দাবি করেছিলেন ‘অরিজিন অব দ্য ফোর্থ ওয়ার্ল্ড ওয়ার’-এর লেখক জে আর নিকিস্ট। তাঁর দাবি ছিল, কানাডার পি৪ ন্যাশনাল মাইক্রোবায়োলজি ল্যাবোরেটরি থেকে করোনাভাইরাসের স্যাম্পেল চুরি করেছিলেন বায়োসেফটি ল্যাবের এক গবেষক। মাইক্রোবায়োলজি ল্যাবে যাতায়াত ছিল ওই গবেষকের। সেখান থেকেই ভাইরাসের নমুনা চুরি করে উহানের ল্যাবোরেটরিতে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি।

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৫:০৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০

    shikkhasangbad24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১ 
    advertisement

    সম্পাদক ও প্রকাশক : জাকির হোসেন রিয়াজ

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বাড়ি# ১, রোড# ৫, সেক্টর# ৬, উত্তরা, ঢাকা

    ©- 2021 shikkhasangbad24.com all right reserved